আইন হাতে তুলে নেওয়া উচিৎ নয়: বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় মমতা

মানবকণ্ঠ
মেয়োরোডে গান্ধীমূর্তির পাদদেশে সংহতি দিবস পালন অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় - ছবি: সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৬:১৮

ভারতের হায়দরাবাদে বন্দুকযুদ্ধে চার ধর্ষকের নিহতের ঘটনায় ‌‘আইন হাতে তুলে নেওয়া উচিত নয়’ বলে মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার সকালে মেয়োরোডে গান্ধীমূর্তির পাদদেশে সংহতি দিবস পালন অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।।

তিনি বলেন, ‘হায়দরাবাদে ধর্ষণের ঘটনা দুঃখজনক। কিন্তু আইন হাতে তুলে নেওয়া উচিত নয়। দ্রুত চার্জশিট দিয়েই অভিযুক্তদের শাস্তি হওয়া উচিত’

এদিন যৌন নিগ্রহ নিয়ে মন্তব্য করেন নেত্রী। যদিও হায়দরাবাদ কাণ্ডের নাম উল্লেখ করেননি তিনি। তবে পরোক্ষভাবে আইন হাতে তুলে নেয়ার বিরোধিতা করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার তেলেঙ্গানায় ধর্ষণকারীদের বন্দুকযুদ্ধে মৃত্যু নিয়ে তোলপাড় হয়েছে ভারতজুড়ে। বন্দুকযুদ্ধ বিতর্কে দেশটিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে।

এর আগে, গত বুধবার রাতে কর্মস্থল থেকে ফেরার পথে তেলেঙ্গানার ওই তরুণী চিকিৎসককে চার ট্রাকচালক ও ক্লিনার কৌশলে নিজেদের ফাঁদে ফেলে গণধর্ষণ করে। পরদিন সকালে ওই তরুণীর আগুনে পুড়ে যাওয়া মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটে তেলেঙ্গানার রাজধানী হায়দরাবাদের অদূরে। শাদনগর নামক এলাকা দিয়ে স্কুটারে করে যাচ্ছিলেন ওই তরুণী। মাঝ রাস্তায় স্কুটারের টায়ার ফেটে গেলে তিনি অভিযুক্ত ওই দুই ট্রাকচালকের কাছে সাহায্য চেয়েছিলেন।

প্রাথমিক তদন্ত শেষে স্থানীয় পুলিশ বলেছে, ধর্ষণের শিকার ২২ বছর বয়সী ওই তরুণী পশু-চিকিৎসককে হায়দরাবাদের অদূরের মফস্বল এলাকা শামশাবাদের তন্দুপল্লি টোল প্লাজার কাছে খুন করা হয়। তারপর ২৫ কিলোমিটার দূরে শাদনগর নামক এলাকার চাতানপল্লী সেতুর কাছে তরুণীর মরদেহ পুড়িয়ে ফেলে ধর্ষকরা।

মানবকণ্ঠ/আরবি





ads






Loading...