Image description

আগামী ৫ জুন রাজধানীতে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনে সহযোগিতার অনুমতি চাইতে গিয়ে জামায়াতে ইসলামীর প্রতিনিধি দলের চার সদস্যকে ডিএমপি সদর কার্যালয়ের সামনে থেকে আটক করে পুলিশ। তবে তাদের বিরুদ্ধে কোনো মামলার তথ্য না পাওয়ায় বিক্ষোভ কর্মসূচির আবেদন জমা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ।

সোমবার বিকেল সোয়া ৪টার পরপরই ডিএমপি সদর দপ্তরের গেটে পৌঁছে জামায়াতের ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল। এরপর প্রতিনিধি দলের চারজনকেই আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ।

ডিএমপির রমনা বিভাগের ডিসি মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন জানান, আমরা তাদের গ্রেপ্তার করিনি। তাদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি, তাদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে কি না তা খোঁজ-খবর নিয়েছি। মামলা না থাকায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তারা তাদের কর্মসূচির ব্যাপারে আবেদনের কপি ডিএমপি সদর দপ্তরে জমা দিয়ে চলে গেছেন।

ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ জামায়াতের প্রচার ও মিডিয়া বিভাগের পরিচালক আশরাফুল আলম ইমন জানান, আগামী ৫ জুনের কর্মসূচি পালনে সহযোগিতা চেয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কার্যালয়ে আবেদন জমা দিতে যাওয়ার সময় জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের প্রতিনিধি দলকে ডিএমপি কার্যালয়ের গেট থেকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ।

জামায়াতের চার সদস্যের প্রতিনিধি দলে ছিলেন- সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সহ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাইফুর রহমান, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সহ সভাপতি ও মানবাধিকার কর্মী অ্যাডভোকেট ড. গোলাম রহমান ভুইয়া, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল বাতেন, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দীন ভুইয়া।

তিনি বলেন, জামায়াতের ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দলকে কিছুক্ষণ আগে গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয় থেকে মুক্তি দিয়েছে ঢাকা মহানগর মেট্রোপলিটন পুলিশ।

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ, আমিরে জামায়াত ডা. শফিকুর রহমানসহ জাতীয় নেতা ও ওলামায়ে কেরামের মুক্তি এবং কেয়ারটেকার সরকার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার দাবিতে আগামী ৫ জুন বিকেল ৩টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জামায়াতে ইসলামী।

মানবকণ্ঠ/এসআরএস