সরকার যত অপকর্ম করেছে তার প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে: ফখরুল


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৭:২৪

দেশের জনগণ বর্তমান সরকারের দুঃশাসন থেকে মুক্তি চায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সরকার লুটপাট, দুর্নীতি, অর্থপাচার আর অপশাসন দেশটাকে সত্যিকার অর্থেই অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠানকেই বাকশালীরা ধ্বংসের শেষ প্রান্তে পৌঁছে দিয়েছে। বাগাড়ম্বর আর কাল্পনিক উন্নয়নের গল্প দেশের জনগণ আর শুনতে চায় না। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর যত অন্যায় অপকর্ম করেছে তার প্রায়শ্চিত্ত তাদেরকে করতে হবে।

বুধবার দুপুরে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমান ভোটারবিহীন অবৈধ সরকারের কিছু সুবিধাভোগী দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ী চক্রের হাতে দৈনন্দিন ভোগ্যপণ্যের বাজার ব্যবস্থাপনা জিম্মি হয়ে আছে। এ সরকারের জনগণের কাছে কোনো দায়বদ্ধতা নেই বলে তারা জনগণের কল্যাণের তোয়াক্কা না করে নিদারুণভাবে নিষ্ঠুর ও নির্দয় হয়ে পড়েছে। এমতাবস্থায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে এই দুর্নীতিগ্রস্ত স্বৈরাচারী সরকারকে রাজপথের গণ-আন্দোলনের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত করে দেশে সত্যিকার অর্থে জনমানুষের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে বাজারে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির একটি তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরেন বিএনপির মহাসচিব।

তিনি ২০০৬ সালের সেপ্টেম্বর মাস ও ২০২২ সালের আগস্ট মাসের বাজার দর উল্লেখ করে বলেন, টিসিবির বাজারদর অনুযায়ী বিএনপির সময় ২০০৬ সালে মোটা চাল ছিল ১৭ টাকা কেজি, যা বর্তমানে ৫২ থেকে ৫৪ টাকা। সরু চাল ছিল ২৪ টাকা, বর্তমানে ৬৪ থেকে ৮৫ টাকা। পেঁয়াজ ছিল ৮ থেকে ২০ টাকা কেজি, বর্তমানে ৪৫ থেকে ৫০ টাকা।

সয়াবিন তেল ৪৪ টাকা ছিল, বর্তমানে ১৮৫ থেকে ১৯০। গরুর মাংস ছিল ১৫০ টাকা কেজি, এখন ৬৫০ থেকে ৬৮০ টাকা। খাসির মাংস বিএনপির সময় ছিল ২৩০ টাকা কেজি, বর্তমানে ৮৫০ থেকে ৯৫০ টাকা। ইলিশ মাছ বড় সাইজ প্রতি কেজি ২৮০ টাকা ছিল, এখন ৬০০ থেকে ১৪০০ টাকা।

গুঁড়োদুধের দাম উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, বিএনপির সময়ে এ দুধের কেজি ছিল ২৮৫ টাকা, যা এখন ৭৬০ থেকে ৮২০ টাকা। দেশি মসুর ডাল ছিল ৪৫ টাকা, এখন ১৩০ থেকে ১৩৫ টাকা। নেপালি মসুর ডাল ছিল ৪৫ টাকা, বর্তমানে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা। ব্রয়লার মুরগি ছিল ৫৫ টাকা কেজি, বর্তমানে ১৯০ থেকে ২০০ টাকা। দেশি মুরগি ১৮০ টাকা থেকে বেড়ে বর্তমানে ৫০০ থেকে ৫৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আটার (প্যাকেট) কেজি ছিল ২০ টাকা, বর্তমানে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা। প্রতি হালি ফার্মের মুরগির ডিম ছিল ১১ টাকা। বর্তমানে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা। আলুর কেজি ছিল ৬ টাকা, বর্তমানে ২৬ থেকে ৩০টাকা। লবণ ১৮ টাকা ছিল, এখন ৩০ থেকে ৩৫টাকা। চিনি ছিল ৩৭ টাকা, বর্তমানে ৮৮ থেকে ৯০ টাকা।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ড. আব্দুল মঈন খান ও নজরুল ইসলাম খান।


poisha bazar