হেলেনা জাহাঙ্গীর গ্রেফতার


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ৩০ জুলাই ২০২১, ০০:১৫,  আপডেট: ৩০ জুলাই ২০২১, ০৯:৪৫

প্রায় তিন ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত নেত্রী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। তাকে আইসিটি অ্যাক্ট ও মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখানো হবে বলে র‌্যাবের একটি সূত্র জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১২টার দিকে গুলশান ২ এর ৩৬ নম্বর সড়কের ৫ নম্বর বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতারের পর র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু জানান, গুলশান ২ এর ৩৬ নম্বর সড়কের ৫ নম্বর বাড়িতে র‌্যাব অভিযান পরিচালনা করে। যে বাড়ির মালিক হেলেনা জাহাঙ্গীর। অভিযান পরিচালনাকালে ওই বাড়ি থেকে বিভিন্ন আলামত উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, উদ্ধারকৃত আলামত মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিদেশি মদ, ওয়াকি টকির সেট, বৈদেশিক মুদ্রা, ক্যাসিনো খেলার সরঞ্জাম, হরিণের চামড়া প্রবৃদ্ধি আমরা উদ্ধার করেছি। উদ্ধারকৃত আলামত ও নিদিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক অতি শীঘ্রই সংবাদ সম্মেলনে জানানো হবে।

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় থেকে জব্দকৃত আলামত।

সম্প্রতি আলোচনায় উঠে আসা হেলেনা জাহাঙ্গীরের গুলশানের বাড়িতে রাত ৮টার দিকে এই অভিযান শুরু করে র‌্যাব। এর ঘণ্টা দুয়েক পর র‌্যাবের নারী সদস্যদের সেখানে ঢুকতে দেখা যায়। এরপর রাত সোয়া ১২টার দিকে র‌্যাবের সদস্যদের সঙ্গে বেরিয়ে আসেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। তার মুখে ছিল মাস্ক। পরনে ছিল চেক জামা ও হলুদ ওড়না।

আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ থেকে গত রোববার হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দিয়ে আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। বিজ্ঞপ্তিতে উপকমিটির সদস্যসচিব ও আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ সই করেন।

এতে বলা হয়, হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য ছিলেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত তার সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড সংগঠনের নীতিবহির্ভূত হওয়ায় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ হতে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি ফেসবুকে নেতা বানানোর ঘোষণা দিয়ে ছবি পোস্ট করে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ নামের একটি সংগঠনের ব্যানারে সংগঠনটির জেলা, উপজেলা ও বিদেশি শাখায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নিয়োগ দেয়া হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়, যা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। কথিত এই সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি হিসেবে হেলেনা জাহাঙ্গীর ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মাহবুব মনিরের নাম উল্লেখ করা হয়।

‌‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামের একটি ‘ভূইফোঁড়’ সংগঠনের সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরের সম্পৃক্ততার খবর প্রকাশ হলে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি থেকেও বাদ দেয় আওয়ামী লীগ।



poisha bazar

ads
ads