সংকট কাটছে না জাতীয় পার্টির


  • ছলিম উল্লাহ মেজবাহ
  • ২২ জুন ২০২১, ১০:২৭

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের হাতে গড়া দল জাতায় পার্টির (জাপা) সংকট কাটছে না। বর্তমান একাদশ সংসদে বিরোধী দলের আসনে থাকলেও সাংগঠনিক সংকট লেগেই আছে দলটির। জাতীয় পার্টির অধিকাংশ কমিটিই মেয়াদোত্তীর্ণ। অঙ্গ ও সহযোগী দলগুলোর কমিটির মেয়াদকালও উত্তীর্ণ। এ কারণে কোনো কর্মসূচি নিয়ে মাঠে দেখা পাওয়া যায় না এরশাদের এই দলকে।

দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদের নতুন আঙ্গিকে দলকে ঢেলে সাজানোর জন্য বারবার উদ্যোগ নেয়ার পরও পিছু ছাড়ছে না সাংগঠনিক সংকট। তবে সাংগঠনিক কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হওয়ার পেছনে কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে বিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাসকে। বৈশ্বিক এই মহামারীর কারণেই গত এক বছরের বেশি সময় ধরে সারা দেশে জাপাকে সংগঠিত করতে পারছে না দলটির নেতারা।

জাপার শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে আলাপে জানা গেছে, চলমান করোনার প্রভাব হ্রাস না হওয়া পর্যন্ত সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির ক্রার্যক্রম ধীর গতিতে থাকবে। তবে তারা এ মুহূর্তে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন জাতীয় সংসদের উপ-নির্বাচনসহ স্থানীয় সরকারের ইউপি ও পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নেয়া এবং আগামী ১৪ জুলাই জাপার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালন নিয়ে।

জাপার সাংগঠনিক কার্যক্রম বৃদ্ধির প্রসঙ্গে দলটির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু মানবকণ্ঠকে বলেন, আমি প্রতিদিন জাপার বনানী চেয়ারম্যান কার্যালয়ে অবস্থান করি। সকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সাংগঠনিক বিষয়ে মতবিনিময় হচ্ছে। প্রতিদিন সারা দেশের বিভাগীয়, জেলা, থানা, উপজেলা ও পৌরসভা এবং ইউনিয়ন জাপার নেতাদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে।

জাপার মহাসচিব বলেন, আমাদের দল এখন সংসদেও সরব। সরকারের জনবিরোধী সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সংসদে সক্রিয় রয়েছেন জাপার এমপিরা। আমরা সংসদের পাশাপাশি রাজপথে রয়েছি। আর দলের কার্যক্রমে রয়েছি সক্রিয়।

এদিকে ২৮ জুন কুমিল্লা-৫ আসনের যে উপনির্বাচন হতে যাচ্ছে, তা থেকে সরে এসেছে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. জসিম উদ্দিন। এ আসনে দলটির সাংগঠনিক কার্যক্রম থাকলেও শক্তিশালী অবস্থান না থাকায় নিজেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

তার একজন ঘনিষ্টজন মানবকণ্ঠকে বলেন, বুড়িচং ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম খুবই শক্তিশালী। বিএনপি অংশ না নেয়ায় জাতীয় পার্টি থেকে দলীয় মনোনয়ন পান জসিম উদ্দিন। কিন্তু সাংগঠনিকভাবে অবস্থান না থাকার কারণে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে জসিম নিজেই সরে পড়েন। উপনির্বাচন থেকে সরে যাওয়ায় প্রার্থী মো. জসিম উদ্দিনকে দলের প্রাথমিক সদস্য সহ সকল পদ-পদবী থেকে বহিষ্কার করে জাতীয় পার্টি। সোমবার দলটির সহ-দফতর সম্পাদক এম এ রাজ্জাক খাঁন এতথ্য জানান।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি গঠনতন্ত্রের ২০/১ (১) ক ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে জাতীয় পার্টির কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছেন। সেই সঙ্গে কুমিল্লা-৫ আসনের জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মো. জসিম উদ্দিনকে দলের প্রাথমিক সদস্য সহ সকল পদ পদবী থেকে অব্যাহতি প্রদান করেছেন।

রাজ্জাক জানান, ২০ জুন মো. জসিম উদ্দিন কুমিল্লা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করায় তার বিরুদ্ধে উপরোক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যু হয়েছে প্রায় দুই বছর। আগামী ১৪ জুলাই তার দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। গত দুই বছরে জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক অবস্থা কোন পর্যায়ে রয়েছে এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে খোদ দলের ভেতরেই। পার্টির সাংগঠনিক ভিত্তি মজবুত করার জন্য প্রত্যেকটি বিভাগে একজন করে বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব নিয়োগ দেয়া হলেও তেমন কোনো কাজ হচ্ছে না বলে অভিযোগ তৃণমূল নেতা-কর্মীদের।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, পার্টির ৭৭টি সাংগঠনিক জেলার ৪৭টিই মেয়াদোত্তীর্ণ। ১৬টি অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের কমিটির প্রায় সবকটিই মেয়াদোত্তীর্ণ। এরশাদের মৃত্যুর পর গত দুই বছরে অনুষ্ঠিত সব পর্যায়ের নির্বাচনে অংশ নিয়ে শুধু সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে পার্টির প্রার্থী বিজয় পেয়েছে।

এদিকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বিভিন্ন দলীয় অনুষ্ঠানে বলে যাচ্ছেন, পার্টি এখন অনেক চাঙ্গা। সংসদেও আমরা সরব রয়েছি। সাধারণ মানুষের মধ্যে পার্টি নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিটি জেলায় কমিটি গঠনের কাজ চলছে।

তিনি দলীয় নেতাদের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সময়ে বলেন, মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বলতে কিছু নেই। আহ্বায়ক কমিটি দিয়ে সংগঠন পরিচালনা করা হচ্ছে। করোনার বিধিনিষিধের কারণে কাউন্সিল করা যাচ্ছে না। গত দুই বছরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে অনেক জায়গায়ই পার্টির প্রার্থীর জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা ছিল, কিন্তু নির্বাচন সুষ্ঠু না হওয়ার কারণে আকাক্সিক্ষত ফল লাভ হয়নি।

 


poisha bazar

ads
ads