‘সংবাদপত্রের স্বাধীনতাকে হরণ করে কণ্ঠরোধ করা হয়েছে’


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৪

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বর্তমানে বাংলাদেশে রাজনীতি ও গণতন্ত্রের পথকে সংকুচিত করে দেওয়া হয়েছে। নাগরিক স্বাধীনতা, ভোটাধিকার, মানবিক মর্যাদা হরণ করা হয়েছে। নানা কালাকানুনের মাধ্যমে সংবাদপত্রের স্বাধীনতাকে হরণ করে মত প্রকাশের স্বাধীনতার কণ্ঠরোধ করা হয়েছে। ভিন্নমতের কারণে অনেকেই গুম, খুন ও বিচারবহির্ভূত হত্যার শিকার হয়েছেন।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ‘আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস’ উপলক্ষে এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।

আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বের গণতন্ত্রমনা মানুষকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, জাতিসংঘ ২০০৭ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে এই দিবসটি পালিত হয়ে আসছে গণতন্ত্রের বিষয়বস্তু ও অনুশীলনে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে যারা জীবন দিয়েছেন তাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও আহতদের প্রতি সমবেদনা জানায়।

প্রকৃত গণতান্ত্রিক সমাজে ব্যক্তি মানুষের মর্যাদা সমুন্নত থাকে বলে মন্তব্য করেছে বিএনপির মহাসচিব বলেন, একমাত্র গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র সমাজেই কেবলমাত্র মানুষের অধিকার নিশ্চিত হয়। সারাবিশ্বের বহু মত, পথের গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার প্রতি মানুষের আগ্রহকে ভূলুণ্ঠিত করে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে এখনও একদলীয় দুঃশাসনের কালো ছায়া বিরাজমান।

বাংলাদেশের গণমানুষের অবিসংবাদিত নেতা খালেদা জিয়াকে মিথ্যা ও সাজানো মামলায় গৃহবন্দী রাখা হয়েছে বলে দাবি করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, এখনও তিনি পুরোপুরি মুক্ত নন।

অবাধ-নিরপেক্ষ ভোটের মাধ্যমে স্বাধীনভাবে জনপ্রতিনিধি নির্বাচনের পথ রুদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে দাবি করে ফখরুল বলেন, নির্বাচনী বিধি-ব্যবস্থা ধ্বংস করা হয়েছে। এ কথা প্রমাণিত সত্য যে, বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়। তাই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশনের তত্ত্বাবধানে নির্বাচন আজ গণদাবিতে পরিণত হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এমএইচ



poisha bazar

ads
ads