শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় এরশাদকে স্মরণ

- ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৪ জুলাই ২০২০, ১৯:৪৫

দোয়া, মিলাদ মাহফিল, স্মরণসভা, প্রার্থনা সভা, দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণসহ এরশাদের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্য দিয়ে প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় স্মরণ করেছে জাতীয় পার্টির সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) ছিলো জাপার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের প্রথম মৃত্যুবাষির্কী। এই উপলক্ষ্যে পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের নেতৃত্ব বেশকিছু কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে সকালে বিমানযোগে রংপুরে যান।

পরে রংপুরের পল্লীনিবাসে তিনি কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে এরশাদের সমাধিস্থলে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও ফাতেহা পাঠ করে মোনাজাত করেন। এরপর পল্লীনিবাসের সামনে এক স্মরণসভায় বক্তব্য রাখেন জিএম কাদের।

রংপুর সিটি মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সভাপতিত্বে পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙাসহ এসময় পার্টির কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

একই সময়ে এরশাদপত্মী ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের বাসভবন, বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে ট্রাস্টের উদ্যেগে ও জাপার বনানী কার্যালয়ে কোরআন খতম অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাপার পক্ষ থেকে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে ও দিন ব্যাপী কোরান খতমের আয়োজন করা হয়। কাকরাইল দলীয় কার্যালয়ে সামনে স্থাপিত এরশাদের প্রতিকৃতিতে প্রথমে দলের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ এবং জাপা চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদেরের পক্ষ থেকে ফুলের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা। এরপর ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় পার্টি ও উত্তর, জাতীয় যুব সংহতি, জাতীয় ছাত্র সমাজ, স্বেচ্ছাসেবক পার্টি, মহিলা পার্টি, কৃষক পার্টি, শ্রমিক পার্টি, সার্ক কালচারাল সোসাইটিসহ জাপার বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে এরশাদের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

বিকেলে বাদ আসর রওশন এরশাদের গুলশানের বাসভবনে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে অংশ নেন জিএম কাদের। এসময় রওশন এরশাদ, শাদ এরশাদ, এরিক এরশাদ, ভাতিজা আসিফ শাহরিয়ার ছাড়াও পার্টির কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জাপা নেতা প্রফেসর দেলোয়ার হোসেন খান, এসএম ফয়সল চিশতি, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, এরশাদ ট্রাস্টের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কাজী মামুনুর রশীদসহ বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী অংশ নেন।

বনানী কার্যালয়ে জাতীয় পার্টি এক স্মরণসভার আয়োজন করে। জিএম কাদেরের সভাপতিত্বে সভায় দলের মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙাসহ পার্টির সিনিয়র নেতারা প্রয়াত এরশাদের স্মৃতিচারণ করেন। জিএম কাদের এরশাদ শাসনামলের নানান উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন এবং এরশাদের রুহের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

বিকালে বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে এরশাদ ট্রাস্ট স্মরণসভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে। ট্রাস্টের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কাজী মামুনুর রশিদ, ট্রাস্টের সদস্য ছাড়াও সাদ এরশাদ, এরিক এরশাদ, আসিফ শাহরিয়ার ও এরিকের মা বিদিশা সিদ্দিক বক্তব্য রাখেন। এসময় জাপার বিভিন্নস্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। শাদ ও এরিক এরশাদ অভিন্ন বক্তব্যে এরশাদের আদর্শ ও জাতীয় পার্টির ঐক্য ধরে রাখতে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করবেন বলে প্রতিজ্ঞা করেন। বিদিশা সিদ্দিক এরশাদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন।

এছাড়াও বাদ আসর দলের কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার গুলশানের নিজ বাসভবনে, কাজী ফিরোজ রশিদ সাভারে, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা শ্যামপুর কদমতলীতে, প্রেসিডিয়াম সদস্য হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন রাজধানীর কামরাঙ্গীচরে, অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান টেপা হাইকোর্ট মাজারে নিজস্ব উদ্যেগে মিলাদ মাহফিল ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন।

পার্টির অপর অতিরিক্ত মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা রাত বারটা এক মিনিটে কাকরাইল কার্যালয়ে এরশাদের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পাশাপাশি কাকরাইলে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন। দলের উপদেষ্টা হাসিবুল ইসলাম জয় বনানী কাঁচাবাজারে দোয়া মাহফিল করেন। দলের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম তিনশ ফিট কাঞ্চনে দুই সহস্রাধিক মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেন। এসময় এরশাদের ভাতিজা আসিফ শাহরিয়ার উপস্থিত ছিলিন।

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দের ব্যক্তিগত উদ্যোগে ও জাতীয় হিন্দু মহাজোট ঢাকা মহানগর দক্ষিণের পক্ষ থেকে শ্যামপুর শ্রৗ শ্রৗ রামকৃঞ্চ গোস্বামী মন্দিরের এরশাদ স্মরনে আয়োজন করা হয় বিশেষ প্রার্থনা ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টি দিনব্যাপী কোরান খতমের আয়োজন করে। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পার্টিও কাকরাইল অফিসে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads






Loading...