• শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০
  • ই-পেপার
12 12 12 12
দিন ঘন্টা  মিনিট  সেকেন্ড 

ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছে বিএনপি: আব্দুর রহমান

ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছে বিএনপি: আব্দুর রহমান

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ২০:৩৫,  আপডেট: ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ২০:৪১

আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান বলেছেন, আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচন ঘিরে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে বিএনপি। শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছাত্রলীগের ‘লিডারশীপ ওরিয়েন্টেশন’ কার্যক্রম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জনগণ বিএনপিকে ভোট দিবে না উল্লেখ করে রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা গত ১০ বছরে বাংলাদেশের মানুষকে যে অভাবনীয় উন্নয়ন উপহার দিয়েছেন, তাতে আমি আশা করি যে বিএনপিকে কোনো অর্থেই ভোট দেওয়ার কারণ নেই।

তিনি বলেন, আমি মনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রাজধানীবাসী যে উন্নয়ন চিত্র দেখছেন। এবং যে সুফল তারা ভোগ করছেন এতেই ভোটাররা বঙ্গবন্ধু কন্যার মনোনীত প্রার্থীকেই ভোট দেবেন। ৩০ তারিখের নির্বাচনে নৌকা মার্কাকেই বিজয়ী করবেন।

নির্বাচনে বিএনপির অভিযোগ প্রসঙ্গে আব্দুর রহমান বলেন, বিএনপির অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই। এটা নেহাতই রাজনৈতিকভাবে ঘোলা পারিতে মাছ শিকারের একটা অপচেষ্টা মাত্র। নির্বাচনের এই পর্যন্ত এই ঢাকা সিটির কোথাও কোনো জায়গায় এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি, যাতে নালিশ কিংবা অভিযোগ জানানোর মতো কারণ সৃষ্টি হয়েছে। সুতরাং এটা শুধু রাজনৈতিক অভিযোগ। এই অভিযোগ আমাদের আমলে নেয়ার কারণ নেই।

সরস্বতী পূজার দিনে নির্বাচন নিয়ে একটা বিব্রতকর অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সভাপতিমন্ডলীর এ সদস্য বলেন, সেটি আমাদেরকেও বিব্রত করছে এবং আমরাও আজকে যারা ছাত্ররা দাবি করছে তাদের সাথেও সহমত পোষণ করি। যে বিষয়টিকে যদি এড়িয়ে যাওয়া যেতো তাহলে এই বিব্রতকর অবস্থা থেকে আমরা সকলেই মুক্তি পেতাম। কিন্তু আসলেই তারিখের গোলমাল হয়েছে পঞ্জিকা দেখে। এই তারিখটি সেভাবে নির্ধারণ করা হয়। আর নির্বাচন কমিশনের নিজস্ব একটা এখতিয়ার আছে নির্বাচনের তারিখ ঠিক করার।

নির্বাচনের তারিখ নিয়ে ছাত্রদের আন্দোলন প্রসঙ্গে আব্দুর রহমান বলেন, ছাত্র বন্ধুরা যেহেতু অত্যন্ত সহনশলীতার সঙ্গে, ধৈর্যের সঙ্গে যৌক্তিকভাবেই আদালতের শরণাপন্ন হয়েছে। এ বিষয়ে আদালত একটা রায় দিয়েছেন। এবং সেই রায়টি তাদের জন্য সন্তোষজনক হয়নি। শুনেছি তারা উচ্চতর আদালতে যাবে। সুতরাং আদালতের রায়ের অপেক্ষা পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে। আদালত তার সুবিবেচনায় যে রায় দিবেন সেটির বিষয়ে আমরা শ্রদ্ধাশীল থাকবো বলেও যোগ করেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ছাত্রলীগের সভপতি আল নাহিয়ান খান জয়। উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য়সহ ছাত্রলীগের বিভিন্নস্তরের নেতৃবৃন্দ।

মানবকণ্ঠ/আরবি




Loading...
ads






Loading...