নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে অংশ নিচ্ছেন কেন, প্রশ্ন হানিফের

নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে অংশ নিচ্ছেন কেন, প্রশ্ন হানিফের
নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে অংশ নিচ্ছেন কেন, প্রশ্ন হানিফের - ছবি: সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:১০,  আপডেট: ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২০:৩৮

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, নির্বাচন যদি সুষ্ঠু নাই হয় তাহলে আপনারা অংশ নিচ্ছেন কেন? আপনি ধরেই নিলেন নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না, তাহলে কী কারণে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন?

তিনি বলেন, আপনার এই বক্তব্য থেকে প্রমাণ হয় আপনারা নির্বাচনে জয় লাভ করার জন্য অংশ নিচ্ছেন না। নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য, নির্বাচন প্রক্রিয়াকে ব্যর্থ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য অংশ নিচ্ছেন। ২০১৮ সালের নির্বাচনে অংশ নিয়ে আপনি ঠাকুরগাঁও বসে মিডিয়ার সামনে বলেছিলেন, নির্বাচন ভালো হয়েছে, ভোট ভালো হয়েছে। অন্য জায়গায় আপনার নেতাকর্মীরাও বলেছিলেন, নির্বাচন ভালো হয়েছে। সারা দিন নির্বাচন নিয়ে কোনো প্রশ্ন ছিল না, কিন্তু সন্ধ্যার পর যখন দেখলেন আপনাদের চরম লজ্জাজনক পরাজয়, তখনই বললেন সুষ্ঠু হয়নি। এর আগেও সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও একই কথা বলেছিলেন। এ ধরনের রাজনীতি পরিহার করেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের (আইইবি) সেমিনারে ‘মহান বিজয় দিবসের তাৎপর্য’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুলের উদ্দেশ্যে হানিফ বলেন, আমি বহুবার বলেছি গণতন্ত্রের সংজ্ঞা আপনার কাছ থেকে একটু জানা দরকার। মুখে গণতন্ত্রের কথা বলেন কিন্তু অন্তরে কি তা কখনো আপনারা দেখেছেন? রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যখন ছিলেন কোন গণতন্ত্র কায়েম করেছিলেন? ২৬ হাজার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী হত্যা করেছেন। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করলেন। সেই সময় বঙ্গবন্ধুকন্যাকে হত্যা করে একটি দলকে শেষ করতে চেয়েছিলেন। আপনি গণতন্ত্রের কথা বলেন কোন বিবেচনায়?

হানিফ বলেন, তারেক রহমান লন্ডনে বসে মহা আরামে আছেন। উনাদের কয়েজন নেতা বলেছিলেন, তারেক রহমানের দেশে এসে দ্রুত দলের দায়িত্ব নেয়া দরকার। আবার বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয় তারেক অসুস্থ। কয়েক দিন আগেই ইউটিউবে দেখা গেছে লন্ডনের একটি পার্কে উনাদের আনন্দ অনুষ্ঠানে তারেক রহমান হাইজাম্প দিচ্ছেন। কোথায় তিনি অসুস্থ? দেশে ফিরে আসার ভয়ে তিনি অসুস্থ হয়ে আছেন। কারণ যে অপকর্মগুলো করেছেন এর কয়েকটি মাত্র বিচারের রায় হয়েছে। সেখানেই তিনি সাজাপ্রাপ্ত হয়েছেন। উনি জানেন দেশে আসলেই জেলখানায় যেতে হবে। এই ভয়ে তিনি দেশে আসেন না।

অনুষ্ঠানে আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্পাদক প্রকৌশলী শাহাদাৎ হোসেন শিবলুর সঞ্চালনায় এবং আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. ওয়ালিউল্লাহ সিকদারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসিবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর।

মানবকণ্ঠ/এআইএস






ads