নদীর পাড়ে দুর্গতদের পাশে ছাত্রলীগ

নদীর পাড়ে দুর্গতদের পাশে ছাত্রলীগ
ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’ ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগিতায় ত্রাণ কার্যক্রম ও প্রাথমিক চিকিৎসায় মেডিকেল টিম পরিচালনা করছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ

poisha bazar

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৪৪

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’ ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগিতায় দুর্গত ১১টি জেলায় ত্রাণ কার্যক্রম ও প্রাথমিক চিকিৎসায় মেডিকেল টিম পরিচালনা করছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। ঝড় পরবর্তী ত্রাণ কার্যক্রমে বরিশাল এলাকায় কাজ করছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন বিন সাত্তার। তার সঙ্গে কথা বলেছেন মানবকণ্ঠের এ প্রতিবেদক। এ সময় ছাত্রলীগের এই নেতা জানিয়েছেন ব্যাপক কর্মযজ্ঞের পরিস্থিতি ও পরিকল্পনা কথা।

মামুন বিন সাত্তার বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশে বরিশালের পিরোজপুর এলাকায় ত্রাণ কার্যক্রমে যুক্ত আছি। এখানে ওয়ার্ড পর্যায়ের সংগঠনের সঙ্গে ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলা কমিটির সমন্বয় করা হচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়ের পরেই ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা করা হয়েছে। সেই তালিকা ধরে ধরে আমরা ত্রাণ দিচ্ছি।

ছাত্রলীগের নেতারা সহযোগিতার জন্য জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে বলে জানান মামুন বিন সাত্তার। তিনি বলেন, সাহায্য বিতরণে ফান্ডের জন্য আমরা প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। তারা সরাসরি সহযোগিতা ও দীর্ঘমেয়াদে দুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন।

মামুন বিন সাত্তার বলেন, সহযোগিতার প্রথমদিনে আমরা ৩৭২টি পরিবারের মধ্যে ৩০ কেজি করে চাল, ডাল, তেল, ১ বান টিন দেয়া হয়েছে। এছাড়া গৃহহারাদের জন্যে ১ বান করে টিন দেয়া হয়েছে। এই কার্যক্রম আগামী ২২ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে।

কৃষকদের জন্যে কৃষি সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে উল্লেখ করে মামুন বিন সাত্তার বলেন, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’ অনেক কৃষকের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তাদের পুনর্বাসনের জন্যে আমরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সঙ্গে কথা বলেছি। ফসলের বীজ ও জমি পরীক্ষা করে তাদেরকে সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছে অধিদপ্তর।

ঘূর্ণিঝড়ের কারণে মৃৎশিল্পের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। ছাত্রলীগের এই নেতা বলেন, আমরা কাউখালীতে মৃৎশিল্প পল্লীতে গিয়েছি। তারা যে ক্ষতির মুখে পড়েছেন সেজন্যে তাদেরকে অর্থ সহযোগিতা দেয়া হবে।

কাউখালীর বিখ্যাত শীতল পাটি বানানো শ্রমিকদের মধ্যে যারা ঝড়ের কারণে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন তাদের বিশেষ সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে জানান মামুন বিন সাত্তার। তিনি জানান, শীতল পাটি শ্রমিকদের জন্যে আমরা জেলা প্রশাসনে কথা বলেছি। তাদের ক্ষতি পুষিয়ে দিতে নদীর পাড় থেকে জমি বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প করা হচ্ছে বলে জানান মামুন বিন সাত্তার। তিনি বলেন, নদী পাড় এলাকায় যেখানে জলাবদ্ধতার সমস্যা আছে, চিকিৎসাকেন্দ্র দূরে সেখানে আমরা ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প করছি। শেরে বাংলা মেডিকেলের চিকিৎসকদের নিয়ে গড়া টিমকে নিয়ে দুর্গম এলাকায় যাচ্ছি। সেখানে প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসামগ্রী দেয়া হচ্ছে।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, দেশের প্রত্যেকটা দুঃসময়ে ছাত্রলীগ আপামর জনতার কাঁধে কাঁধ রেখে কাজ করেছে। তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’ ক্ষতিগ্রস্থদের জন্যেও আমরা মাঠে নেমেছি। তাদের সহযোগিতায় কাজ করছি।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads





Loading...