হুয়ানচাকোতে ২২৭টি শিশুবলি!

- প্রতীকী ছবি।

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:৫৯

হুয়ানচাকোতে ২২৭টি শিশুর কঙ্কাল আবিষ্কার করেছেন এক দল প্রত্নতাত্ত্বিক। সেখানে চিমু গোষ্ঠীর শিশুবলির ইতিহাসের সূত্র খুঁজে তাঁরা পেয়েছেন বলে বুধবার সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন গবেষক ফেরেন কাস্তিয়ো।

বিজ্ঞানীরা অনুমান করেন, ৯০০ থেকে ১২০০ খ্রিস্টাব্দে পেরুর এই অঞ্চলে থাকত চিমু গোষ্ঠীর মানুষ। তাদের সংস্কৃতিতে ছিল গণহারে শিশুবলির রীতি। প্রত্নতাত্ত্বিকরা জানাচ্ছেন, এই গোষ্ঠীর ইতিহাসে রয়েছে প্রাপ্ত বয়স্কদের বলি দেয়ার রীতিও। আবহাওয়ার দেবতাকে তুষ্ট করতেই এই গণবলির আয়োজন করা হতো বলে অনুমান করছেন তাঁরা।

প্রত্নতাত্ত্বিকরা জানাচ্ছেন, এই গোষ্ঠীর ইতিহাসে রয়েছে প্রাপ্ত বয়স্কদের বলি দেয়ার রীতিও। আবহাওয়ার দেবতাকে তুষ্ট করতেই এই গণবলির আয়োজন করা হতো বলে অনুমান করছেন তারা। ইতিহাস বলছে, চিমু গোষ্ঠীর সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিক ছিল রোদে পোড়ানো ইট দিয়ে সেই সময়ের সবচেয়ে বড় শহর গড়ে তোলা।

এছাড়াও শিল্পচর্চা ও সেচ ব্যবস্থার দিক দিয়ে অনেকটাই উন্নত ছিল এই গোষ্ঠী বলে জানা গেছে। ১৯৯৭ সালে ‘পুন্টা লোবোস কাণ্ড’র খোঁজ পান প্রত্নতাত্ত্বিকরা। সেই বছরই খুঁজে পাওয়া যায় ২০০টি শব। জানা যায়, ‘পুন্টা লোবোস কাণ্ড’র অংশ হিসেবে ১৩৫০ খ্রিস্টাব্দে ২০০ জন মৎস্যজীবীকে বলি দেয়া হয়েছিল। গবেষকেরা বলছেন, ১৪০০ খ্রিস্টাব্দ নাগাদ ইনকা সম্প্রদায়ের দাপটে শেষ হয়ে যায় চিমুদের রাজত্ব। তার ঠিক ৫০ বছরের মধ্যেই স্পেনীয়দের দখলে চলে আসে সেকালের চিমু অঞ্চল।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads




Loading...