ঈদুল আযহায় একজন মুসলিম যে প্রশ্নগুলো করা থেকে বিরত থাকবেন



  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১১ আগস্ট ২০১৯, ১২:১৭

ঈদ মানেই খুশি। ঈদ মানে আনন্দ। কিন্তু অনেক সময়ই দেখা যায় আমরা না বুঝেই এমন অনেক কাজ বা কথা বলে ফেলি যা অন্যদের জন্য কষ্টের কারণ হতে পারে। প্রিয় পাঠক, আজকের এই আলোচনা সেসব নিয়েই।

১. কাউকে জিজ্ঞেস করবেন না যে সে কোরবানি দিচ্ছে কি না। অনেকেই আছে যারা কোরবানি দিতে পারে না কিন্তু তা বলতে লজ্জা পায়। নিজের অপারগতা কারই বা বলতে ভালো লাগে। যারা প্রতিবছর কোরবানি দেয় তাদেরকেও জিজ্ঞেস করবেন না। কারণ, এই বছরে তারাও অপারগ হতে পারে।

২. কাউকে গরু কিনে নিয়ে যেতে দেখলে দাম জিজ্ঞেস করতে পারেন কিন্তু সে ঠকলো না জিতলো এই কথা বলবেন না। দাম শুনে বলবেন- আলহামদুলিল্লাহ।

৩. আপনার এমন প্রতিবেশীদের খোঁজ নিন যারা কোরবানি দিতে পারে না। আবার গ্রামেও যায় না বা যেতে পারেনি ঈদ করতে। স্থানীয় হলে অনেকেই চেনে সেজন্য কোরবানির সময় তারা মাংশ পায়। কিন্তু অনেকেই আছে ভাড়া থাকে এবং আশেপাশের মানুষের সাথে তাদের তেমন পরিচিত ও নেই। তাই তাদেরকে গোস্ত বিলানো হয়না। এরকম পরিবার খুজে খুজে বের করে তাদেরকে পারলে মাংশ দিয়ে আসবেন।

৪. একটা ট্রেন্ড চালু আছে যে যেসব রিলেটিভ রা বা প্রতিবেশিরা কোরবানি দিয়েছে তাদেরকেও আমরা মাংশ দেই। বিনিময়ে তারাও দেয়। কিন্তু তার আগে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যেন গরীব আত্মীয় ও প্রতিবেশীদের হক নিশ্চিত করেছেন কি না।

৫. সবশেষে মনে রাখতে হবে যে, কোরবানি কিন্তু লোক দেখানো বা সামাজিক সম্মানের ব্যাপার নয়। এটা ধনীদের উপর আল্লাহর হুকুম। তাই কোরবানি যেন আপনাকে অহংকারী করে না তোলে।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ




Loading...
ads




Loading...