সাত দফা দাবিতে অনশনে জবি শিক্ষার্থীরা



  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৯:০৭

জকসু নির্বাচন, বাসের ডাবল ট্রিপ চালুসহ সাত দফা দাবিতে আন্দোলনের পর এবার অনশনে বসেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা। বৃষ্টিকে অপেক্ষা করে রোববার সকাল ১০টা থেকে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারের সামনে আন্দোলনের আহ্বায়ক রাইসুল ইসলাম নয়নের নেতৃত্বে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা অনশন শুরু করেন।

অনশনরত শিক্ষার্থীরা জানান, ইতোপূর্বে বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনের সময় উপাচার্য দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন কিন্তু তা বাস্তবায়ন করেননি। সাত দফা দাবি নিয়ে আমরা প্রথমে আন্দোলন করেছে এবং এরপর অনশনে বসেছি। এখন আর উপাচার্যের মুখের আশ্বাস বিশ্বাস করি না। সাত দফা বাস্তবায়নের লিখিত আশ্বাস দেয়ার প্রস্তাবকে উপাচার্য নাকোচ করেছেন। আমাদের দাবি আদায়ে প্রশাসন তালবাহানার আশ্রয় নিয়েছে। সাত দফা দাবি মেনে নেয়ার সময়সীমা লিখিতভাবে না দেয়া পর্যন্ত আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীরা অনশন চলিয়ে যাব।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো— আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ক্যান্টিনের ভর্তুকি বাড়িয়ে খাবারের দাম কমাতে হবে এবং খাবারের মান উন্নত করতে হবে। এক মাসের মধ্যে বাসের ডাবল শিফট চালু করতে হবে। আগামী চার মাসের মধ্যে জকসু নির্বাচন দিতে হবে। আগামী দুই মাসের মধ্যে ছাত্রী হলের কাজ শেষ করতে হবে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে ৭০ শতাংশ শিক্ষক নিয়োগ দিতে হবে ও জবি শিক্ষার্থীদের আবেদনের ক্ষেত্রে সিজিপিএ শর্ত শিথিল করে স্বচ্ছ নিয়োগ পরীক্ষার মাধ্যমে যোগ্যদের নিয়োগ দিতে হবে। জবির দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের কাজ অবিলম্বে শুরু করতে হবে এবং গবেষণা খাতে শর্ত কমিয়ে বাজেট বাড়াতে হবে।

এদিকে সাত দফা দাবিতে বৃষ্টিকে অপেক্ষা করে সকাল থেকে অনশনে বসলেও শিক্ষার্থীদের খোঁজ নিতে আসেনি প্রশাসনিক কোন কর্মকর্তা। সাংবাদিকরা উপাচার্যকে অনশনরত শিক্ষার্থীদের কথা জানালেও তিনি এতে কোন কর্ণপাত করেননি। উল্টো সাংবাদিকরা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের উস্কে দিচ্ছেন বলে মন্তব্য করেন।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ



Loading...
ads


Loading...