কুমিল্লা বোর্ডে এগিয়ে মেয়েরা



  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৬ মে ২০১৯, ১৬:০৪

এবারের এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে দেখা গেছে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা এই তিন বিভাগের মধ্যে দুটিতেই কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডে এগিয়ে রয়েছে মেয়েরা। এর মধ্যে ছেলেরা এগিয়ে শুধু বিজ্ঞান বিভাগে আর মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে। মেয়েদের এই এগিয়ে যাওয়াকে সামগ্রিক ভাবে দেশের নারী জাগরণের জন্য ইতিবাচক বলে মনে করছেন বিশিষ্টজনরা।

সোমবার দুপুরে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ড থেকে প্রকশিত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়, এবার কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের অধীন ৬ জেলা থেকে মোট ১ লাখ ৯৩ হাজার ৯৬৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে। এর মধ্যে পাস করেছে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৪৮০ জন। পাসের হার ৮৭.১৬ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ৮৩ হাজার ৭১৫ জন ছাত্র আর ১ লাখ ১০ হাজার ২৫৩ জন ছাত্রী।

এবার বিজ্ঞান বিভাগ থেকে মোট পরীক্ষা দিয়েছে ৫৪ হাজার ৩৪০ জন। এর মধ্যে ছাত্র ২৭ হাজার ৮৮৬ জন আর ছাত্রী ২৭ হাজার ৮১২ জন। ছাত্র পাস করেছে ২৭ হাজার ২৩১ আর ছাত্রী পাস করেছে ২৭ হাজার ১০৯ জন। শতকরা হিসেবে ছাত্র পাস করেছে ৯৭.৬৫ ভাগ আর ছাত্রী পাস করেছে ৯৭.৪৭ ভাগ। এখানে মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা এগিয়ে রয়েছে শতকরা ১৮ ভাগ। মানবিক বিভাগ থেকে মোট পরীক্ষা দিয়েছে ৬০ হাজার ৫১৮ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১৩ হাজার ৪৩৭ জন আর ছাত্রী ৪৭ হাজার ৮১ জন। ছাত্র পাস করেছে ১০ হাজার ১৩৭ আর ছাত্রী পাস করেছে ৩৬ হাজার ২৫২ জন। শতকরা হিসাবে ছাত্র পাস করেছে ৭৫.৪৪ ভাগ আর ছাত্রী পাস করেছে ৭৭ ভাগ। এখানে ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে শতকরা ১.৫৬ ভাগ। আর ব্যবসা শিক্ষা বিভাগেমোট পরীক্ষা দিয়েছে ৭৭ হাজার ৮১ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৪২ হাজার ২৪০ জন আর ছাত্রী ৩৪ হাজার ৮৪১ জন। ছাত্র পাস করেছে ৩৬ হাজার ৫৬৯ আর ছাত্রী পাস করেছে ৩১ হাজার ১৮২ জন। শতকরা হিসেবে ছাত্র পাস করেছে ৮৬.৫৭আর ছাত্রী পাশ করেছে ৮৯.৫০ ভাগ। এখানেও ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে।

ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে থাকার বিষয়ে কুমিল্লা কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ হুমায়ূন কবীর মাসউদ বলেন, বর্তমানে আমাদের দেশের মেয়েরা পড়াশুনায় অনেক সচেতন।আর ছেলেরা ভার্চুয়াল এডিকশনে আক্রান্ত। মেয়েদের তুলনায় ছেলেরা পড়ার টেবিলে কম বসে যার প্রমাণ কুমিল্লা বোর্ডে এবারের ফলাফল।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয় সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর আমীর আলী চৌধুরী বলেন, মেয়েদের এই এগিয়ে যাওয়াটা আমাদের দেশের সামগ্রিক ভাবে নারী জাগরণের ক্ষেত্রে এটা একটা ইতিবাচক দিক। আমি বিশ্বাস করি,আমাদের দেশের মেয়েরা এখন আর পিছিয়ে পড়া সমাজে বাস করতে চায় না। তাই তারা শিক্ষিত হয়ে দেশের সামগ্রিক কাঠামোতেও অংশীদার হতে চায়।

মানবকণ্ঠ/এসএস



Loading...
ads


Loading...