শ্রীলঙ্কাকে সতর্ক করল ভারত



  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৩৭

শ্রীলঙ্কান সরকারের তরফে হামলায় স্থানীয় সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ন্যাশনাল তৌহিদ জামাতকে (এনজিএ) দায়ী করা হয়েছে। তখন ভারতের ইন্ডিয়া টুডে মঙ্গলবার খবর দিয়েছে, এনটিজে শ্রীলঙ্কায় আরো হামলা চালাবে। যে খবর শ্রীলঙ্কার ডেইলি মিররও প্রকাশ করেছে।

সরকারি সূত্রের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাল আল-কুইতাল ইলিয়াস রিলওয়ান মারজাগ পরিচালিত এনটিজে’র সদস্যরা শ্রীলঙ্কায় আরো হামলা করবে বলে ভারতের নিরাপত্তা সংস্থা দেশটিকে সতর্ক করে দিয়েছে।

ভারতের নিরাপত্তা সংস্থার দাবি, এনটিজে’র প্রধান জাহরান হাশিমের শ্যালক নওফর মৌলভি সম্প্রতি কাতার থেকে শ্রীলঙ্কায় ফিরে সংগঠনের দায়িত্ব নিয়েছেন।

ইন্ডিয়া টুডে’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোববার গির্জা ও হোটেলে ভয়াবহ হামলায় এনটিজে’র নাম এলেও সংগঠনটি খুবই কম পরিচিত। তবে, তারা ইসলামিক স্টেটের (আইএস) অনুসারি এবং সংগঠনটির সঙ্গে তাদের নেতাদের সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতের এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, মাসব্যাপী নিখুঁত পরিকল্পনা ছাড়া এমন হামলা সম্ভব ছিল না। আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়েরা শ্রীলঙ্কা সফরে এসে, পরে বিভিন্ন অবস্থান থেকে তাদের পরিকল্পনা কার্যকর করেছেন।


২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কার মুসলিম অধ্যুষিত পূর্বাঞ্চলের কাটানকুডিতে এনটিজে আত্মপ্রকাশ করে। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা জাহরান হাশিম ইলিয়াস আবু ওবায়দা। ধারণা করা হচ্ছে, রোববার তিনি কলম্বোর পাঁচ তারকা সাংরি-লা হোটেলে আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছেন।

হামলার পর আল ঘুরাবা মিডিয়া একটি ভিডিও প্রচার করেছে, যাতে ৭ জন আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

ভিডিওতে আবু ওবায়দা ছাড়া বাকিদের মুখ কাপড়ে ঢাকা এবং সেখানে আরবি ও তামিল ভাষায় বার্তা দেয়া হচ্ছে। ভিডিও’র একটি ক্যাপশন, ‘ও ক্রুসেডার, এই রক্তাক্ত দিন (২১ এপ্রিল) তোমাদের জন্য আমাদের উপহার।

শ্রীলঙ্কার রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রের তিনটি গির্জা, তিনটি অভিজাত হোটেলসহ আটটি স্থানে রোববার সকাল থেকে সিরিজ বোমা হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। এই হামলায় এখন পর্যন্ত ৩২১ জন নিহত এবং ৫০০ জন আহত হয়েছেন বলে মঙ্গলবার সংসদে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী রুয়ান ওয়াইজেবর্ধনে।

তিনি যখন এই হামলাকে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিশোধ হিসেবে বর্ণনা করছিলেন, তখন সিরিয়া ও ইরাকের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের দখল নিয়ে খেলাফত ঘোষণা করা জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) দায় স্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছে।

এদিকে, শ্রীলঙ্কার ডেইলি মিরর খবর দিয়েছে, কলম্বোর থানা ও পুলিশ সদস্যদের মঙ্গলবার হাই এলার্ট থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। কলম্বোতে একটি বিস্ফোরক ভর্তি ভ্যান ও লরি ঢুকেছে— এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই সরকারের পক্ষ থেকে এই পরামর্শ দেয়া হয়।

মানবকণ্ঠ/এসএস



Loading...
ads


Loading...